ঢাকাSunday , 19 September 2021
  1. আইন ও অপরাধ
  2. আতাইকুলা
  3. আন্তর্জাতিক
  4. উত্তরবঙ্গ প্রতিদিন
  5. কোভিড-১৯
  6. খেলাধুলা
  7. জাতীয়
  8. টপ নিউজ
  9. তথ্য প্রযুক্তি
  10. ধর্ম ও জীবন
  11. পাবনার সংবাদ
  12. বিনোদন
  13. রাজনীতি
  14. লাইফস্টাইল
  15. শিক্ষাঙ্গন
আজকের সর্বশেষ সবখবর

পাবনায় ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে গুলি-বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ

ডেস্ক রিপোর্ট
September 19, 2021 4:54 pm
Link Copied!

জেলা প্রতিনিধি, পাবনা: পাবনার বেড়া উপজেলার পুরান ভারেঙ্গা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা এ এম রফিকউল্লাহর বাড়ি লক্ষ্য করে অজ্ঞাতনামা দূর্বৃত্তরা গুলিবর্ষণ ও ককটেল নিক্ষেপের প্রতিবাদে মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ করেছেন চেয়ারম্যানের সমর্থকরা।

রোববার (১৯ সেপ্টেম্বর) ভোররাত চারটার দিকে উপজেলার নগরবাড়ি রঘুনাথপুর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। সকাল আটটা থেকে দুপুর সাড়ে ১২টা পর্যন্ত মহাসড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ হয়। পরে প্রশাসনের আঁশ^াসে অবরোধ তুলে মানববন্ধন করেন বিক্ষোভকারীরা।

ইউপি চেয়ারম্যান এ এম রফিকউল্লহর ভাষ্যমতে, একদল দূর্বৃত্ত তার বাড়ি লক্ষ্য করে ১১টি ককটেল নিক্ষেপ করে। এছাড়া ৩টি শর্টগানের গুলি ছোঁড়ে। তবে কোন ক্ষয়ক্ষতি হয়নি বলে তিনি জানান। তার অভিযোগ, দীর্ঘদিন ধরে পাবনা-২ আসনের সাবেক সংসদ সদস্য খন্দকার আজিজুল হক আরজুর সাথে তার নানা বিষয় নিয়ে বিরোধ চলে আসছে। গত শুক্রবার একটি বাড়িতে আমাকে অকথ্য ভাষায় গালিগালাজ ও প্রাণনাশের হুমকি দেন। এ ঘটনায় তিনি আমিনপুর থানায় সাধারণ ডায়েরী করেছেন। তার ধারণা, জিডি করাতেই পরিকল্পিতভাবে এই ঘটনা ঘটানো হয়েছে।

রোববার সকালে ঘটনা জানার পর চেয়ারম্যানের সমর্থকরা কাশিনাথপুর মোড়ে ঢাকা-পাবনা মহাসড়ক অবরোধ করে বিক্ষোভ শুরু করে। এ সময় দুই পাশে যান চলাচল বন্ধ হয়ে প্রচন্ড যানজটের সৃষ্টি হয়। পরে দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে বেড়া উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান রেজাউল হক বাবু, সহকারি পুলিশ সুপার (সুজানগর সার্কেল) রবিউল ইসলাম, উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) মাহবুবুল হাসান, আমিনপুর থানার ওসি রওশন আলম ঘটনাস্থলে গিয়ে সুষ্ঠু বিচারের আশ^াস দিলে অবরোধ তুলে দেন বিক্ষোভকারীরা।

এছাড়া নগরবাড়ি ঘাট এলাকায় ঘটনার বিচার দাবিতে মানববন্ধন করেন স্থানীয় মুক্তিযোদ্ধা ও ব্যবসায়ীরা। তারা অবিলম্বে মুক্তিযোদ্ধা রফিকুল্লাহর বাড়িতে গুলিবর্ষণ ও ককটেল হামলার সুষ্ঠু তদন্ত ও বিচার দাবি জানান।

সংশ্লিষ্ট অভিযোগ অস্বীকার করে সাবেক সংসদ সদস্য খন্দকার আজিজুল হক আরজু বলেন, এ ধরনের কোন ঘটনার সাথে আমার সম্পৃক্ততা নেই। ঘুম ভেঙে আপনাদের কাছে প্রথম জেনেছি। তিনি বলেন, সামনে জেলা আওয়ামী লীগের কাউন্সিল, আমি সভাপতি প্রার্থী। আমাকে নানাভাবে হেয় প্রতিপন্ন করতে আমার দলের মধ্যেই প্রতিপক্ষ গ্রুপ বিভ্রান্তি ছড়াচ্ছে। তবে এই ঘটনার সঠিক তদন্ত করে দোষীদের শাস্তি দাবি করেন তিনি।

আমিনপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রওশন আলী বলেন, স্থানীয়দের কাছ থেকে খবর পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন ও বিক্ষোভকারীদের শান্ত করে পুলিশ। প্রশাসনের কর্মকর্তাদের সাথে নিয়ে বিক্ষোভকারীদের বুঝিয়ে অবরোধ তুলে দিয়ে যান চলাচল স্বাভাবিক করা হয়।

ওসি বলেন, ইউপি চেয়ারম্যানের বাড়িতে গুলিবর্ষণ ও ককটেল নিক্ষেপের ঘটনায় কেউ অভিযোগ দেয়নি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে।

ব্রেকিং নিউজ
x