রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:১১ অপরাহ্ন

শরণখোলায় কেন্দ্র দখলের শঙ্কায় সাত প্রার্থীর অভিযোগ

অনলাইন ডেস্ক / ২২ শেয়ার
প্রকাশ : রবিবার, ১২ সেপ্টেম্বর, ২০২১

বাগেরহাটের শরণখোলা উপজেলার সাউথখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে সদস্য পদে সুষ্ঠু নির্বাচন নিয়ে শঙ্কা দেখা দিয়েছে। ভোটের দিন কেন্দ্র দখল, ভোটারদের ভোটকেন্দ্রে না যাওয়ার হুমকি ও কর্মীদের ভয়ভীতি দেখানোর অভিযোগ উঠেছে প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের বিরুদ্ধে। এসব অভিযোগের প্রতিকার ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবিতে এই ইউনিয়নের সাতজন সদস্য প্রার্থী বাগেরহাট জেলা প্রশাসকসহ বিভিন্ন দপ্তরে লিখিত আবেদন করেছেন।

আবেদনকারীরা হলেন, সাউথখালী ইউনিয়ন পরিষদের ১ নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী শফিকুল ইসলাম ডালিম, ২ নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী মোঃ দোলোয়ার হোসেন খলিল মীর, ৪ নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী সামসুল আলম রিপন, ৫ নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী আল আমিন খান, ৭ নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী আবু হানিফ মুন্সি এবং ৩ নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী জামাল হোসেন জমাদ্দার, ৮ নং ওয়ার্ডের সদস্য প্রার্থী জাহাঙ্গীর খলিফা।

আবেদনকারী প্রার্থী শফিকুল ইসলাম ডালিম বলেন, আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর বাড়ির সামনে কেন্দ্র থাকায় নির্বাচনের আগে থেকেই নানা রকম হুমকি-ধামকী দিয়ে আসছে। এমনকি আমার সমর্থকদের উপর হামলা চালায় এবং কুপিয়ে আহত করে কয়েকজন কর্মীকে। এসব কাজের নেপথ্যে উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান হাসানুজ্জামান পারভেজ রয়েছে। তিনি আমার প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী এবং অন্যান্য ওয়ার্ডে তার মনোনীত প্রার্থীদের বিজয়ী করতে মরিয়া হয়ে উঠেছেন। নির্বাচনের দিন কেন্দ্র দখল করারও পরিকল্পনা রয়েছে তার।

সদস্য প্রার্থী জামাল হোসেন জমাদ্দার, মোঃ দোলোয়ার হোসেন খলিল মীর, আল আমিন খানসহ সকল প্রার্থীদের অভিযোগ আমরা আওয়ামী লীগের নিবেদিত কর্মী হওয়ার পরেও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে নানা প্রকার বাঁধার সম্মুখীন হচ্ছি। সাউথখালী ইউনিয়নের সদস্য প্রার্থীদের কর্মী ও সমর্থকদের নানা প্রকার ভয়ভীতি প্রদর্শনসহ বিভিন্নভাবে আমাদের হয়রানি করছেন উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও সাউথখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান পারভেজ। তিনি একটি বাহিনী গঠন করে প্রতিনিয়ত কেন্দ্রে না যাওয়ার জন্য চাপ প্রয়োগ করছেন। ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে প্রশাসনের কঠোর নজর দারির পাশাপাশি অবাধ ও সুষ্ঠু নির্বাচনের দাবি করেন এই প্রার্থীরা।

উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান ও সাউথখালী ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হাসানুজ্জামান পারভেজ বলেন, ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে আমি কাউকে হয়রানি করার প্রশ্নই আসে না। যারা জনশূন্য, যাদের কোন ভোট নেই তারা এসব অভিযোগ করবে। আমার বিরুদ্ধে অন্তত এক হাজার অভিযোগ রয়েছে। কোন অভিযোগ সত্য নয়।

সদস্য প্রার্থীদের অভিযোগের সত্যতা পেলে নির্বাচন বিধিমালা অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের আশ্বাস দিয়েছেন সাউথখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনের রিটার্নিং কর্মকর্তা ও উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ ওয়াসিম উদ্দিন।


এই বিভাগের আরও খবর
ব্রেকিং নিউজ
x
ব্রেকিং নিউজ
x