রবিবার, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১১:২৮ অপরাহ্ন

শুল্কমুক্ত উপকরণ আমদানী অব্যহত রাখার দাবীতে পাবনায় তাঁতীদের সাংবাদিক সম্মেলন

বার্তা সংস্থা পিপ (পাবনা) : / ৪২ শেয়ার
প্রকাশ : বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই, ২০২১

বিভিন্ন সমস্যা সমাধান ও তাঁতীদের শুল্কমুক্ত উপকরণ আমদানী অব্যহত রাখার দাবীতে গতকাল বৃহস্পতিবার দুপুরে পাবনা প্রেসক্লাবে ৫টি তাতী সমবায় সমিতির সাংবাদিক সম্মেলন করেছে। সাংবাদিক সম্মেলনে বক্তব্য রাখেন, পাবনার গয়েশপুর ৩ নং ওয়ার্ড তাঁতী সমিতির সভাপতি হাকিমুদ্দিন, গয়েশপুর ২ নং ওয়ার্ড তাঁতী সমিতির সভাপতি মো. আইয়ুব আলী, আটঘরিয়ার একদন্ত ৩ নং ওয়ার্ড তাঁতী সমিতির সভাপতি গোলাম মোস্তফা।
সংবাদ সম্মেলনে বলা হয়, তাঁতীদের শুল্কমুক্ত উপকরণ আমদানী ছিল সরকারের যুগান্তকারী পদক্ষেপ। এর মাধ্যমে মৃত প্রায় তাঁত শিল্পের সঙ্গে জড়িতরা কিছুটা আশার আলো দেখেছিল। অসচেতনতার কারণে এই উপকরণ আমদানী পদ্ধতিতে কিছুটা ভুলত্রুটি থাকলেও তা শুধরে শুল্কমুক্ত উপকরণ আমদানী অব্যহত রাখার দাবী জানান তাঁতী নেতৃবৃন্দ।
সাংবাদিক সম্মেলনে আরও বলা হয়, সম্প্রতি মিডিয়াতে ৪৫ কোটি টাকা আতœসাতের অভিযোগ করা বহয়েছে তা সঠিক নয়। তাতীঁরা নিজেদের জমানো টাকায় সরকারের দেয়া শুল্ক সুবিধা গ্রহণ করেছে মাত্র। তাঁত বোর্ড এ সব তদন্ত করে যথার্থতা পায়নি।
এসময় তারা বলেন, আমরা এই জেলার বিভিন্ন ইউনিয়নের পাঁচটি তাঁতি সমিতির সদস্যরা আপনাদের কাছে হাজির হয়েছি। সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে আমাদের সমিতির নামে শূল্ক সুবিধার বরাদ্দকৃত ৪৫ কোটি টাকা আমরা লুটপাট করেছি। এই প্রকাশিত সংবাদটি প্রকৃত ভাবে সত্য নয়। আমরা প্রত্যেক সমিতির সদস্যদের নিকট থেকে টাকা উত্তোলন করে ব্যাংকের মাধ্যমে এলসি করে আমাদের কাজে ব্যবহিত সুতা, রং আমদানি করেছি। সেই সুতা ও রং সকল সদস্যদের মধ্যে বাংলাদেশ তাঁত বোর্ড, বেসিক সেন্টারের লিয়াজো ও ফিল্ড অফিসারেরা সরেজমিন এসে সকল সদস্যদের মধ্যে মালামাল বন্টন করে দিয়েছেন। এই কার্যক্রম সকল সদ্যদের ভোটার আইডি নিয়ে করা হয়। এই সকল মালাশাল বিতরণের মষ্টার রোলের কপি তাঁত বোর্ড এ সংরক্ষিত আছে।
তাই এই ধরনের সংবাদ প্রকাশের কারনে আমরা বেশ বিব্রতকর পরিস্থির মধ্যে পরেছি। আমাদের ভূল বুঝিয়ে অনেকেই হয়তো এই তাঁতি সমিতির নামে অবৈধ ভাবে সুবিধা নিয়ে থাকতে পারে। তবে আমরা সকলের হিসাব এবং শূল্ক সুবিধার সকল অর্থ ও মালামাল সমিতির সকল সদস্যদের মধ্যে বন্টন করে দিয়েছি। তাই প্রকৃত ঘটনা তুলে ধরে করোনাকালীন এই সময়ে ক্ষেটে খাওয়া সাধারন তাঁতিদের মুখের দিকে তাকিয়ে সঠিক তথ্য তুলে ধরবেন সাংবাদিক ভায়েরা। আমাদের অভাব অনাটন কষ্টের কথা তুলে ধরুন এটাই গণমাধ্যমের কাছে আমাদের আবেদন।


এই বিভাগের আরও খবর
ব্রেকিং নিউজ
x
ব্রেকিং নিউজ
x