সোমবার, ০২ অগাস্ট ২০২১, ০৭:০৩ অপরাহ্ন

তেঁতুলের খাঁটি বিক্রির ধুম

অনলাইন ডেস্ক / ১৯ শেয়ার
প্রকাশ : সোমবার, ১৯ জুলাই, ২০২১

ঈদুল আজহার আর মাত্র দুই দিন বাকি। ঈদের দিন কোরবানির পশুর মাংস কেটে প্রস্তুতকরার জন্য প্রয়োজন হয় শক্ত কাঠের খাটি (স্থানীয় নাম খাইট্যা)।

তাই বাজারে এখন তেঁতুল কাঠের খাটির কদর ও প্রয়োজন বেড়েছে। মান ও আকৃতিভেদে তিন ধরনের খাটির দাম তিন রকমের।

বড় আকৃতির খাটির দাম৪০০ টাকা, মাঝারি আকৃতির দাম ৩০০ টাকা এবং ছোট আকৃতির দাম ২০০ টাকা। ঈশ্বরদী উপজেলার বেশ কয়েকটি বাজারে এখন কোরবানির পশুকেনার পরেই নজর তেঁতুলের কাঠের খাটির ওপর। তেঁতুল কাঠের খাটির উপরই ধনী-গরিব সবাই তাদের কোরবানির পশুর মাংস প্রস্তুত করবেন।

আজ সোমবার ঈশ্বরদী উপজেলার প্রাচীন ঐতিহ্যবাহী আড়ম বাড়িয়া বাজারে মো: শের-আলম তেঁতুলের কাঠের খাটি বিক্রি করেছিলেন।

তিনি জানান, গতকাল রবিবার ২৩টি খাটি বিক্রি হয়েছে। আজ দুপুর পর্যন্ত ১৩টি খাটি বিক্রি হয়েছে।

গত ২০ বছর ধরে তিনি কোরবানির আগে খাটি বিক্রি করে আসছেন। তার বাড়িলালপুর উপজেলার ২নং ইউনিয়নের সাদিপুরগ্রামে। গোপালপুর গ্রামের মতিন নামের এক ব্যক্তি একটি ছোট খাটি কিনেছেন।

তিনি বলেন, আমি এবার একটি খাসি কোরবানি দিব। খাসির মাংস কাটার জন্য একটি ছোট আকৃতির ২শত টাকা দিয়ে তেঁতুল কাঠের খাটি কিনেছি। কারণ তেঁতুলের খাটি ছাড়া ভালো মতো মাংস ও হাড় কাটা যায় না।

খাটি বিক্রেতা শের আলম আরও জানান, ঈদ এগিয়ে আসায় ক্রেতার উপস্থিতও বেড়েছে।


এই বিভাগের আরও খবর
ব্রেকিং নিউজ
x
ব্রেকিং নিউজ
x