বেড়ায় চেয়ারম্যানের স্ত্রীর হারপিক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রকাশিত: ৮:৪৪ অপরাহ্ণ , জানুয়ারি ৭, ২০২১

পাবনা প্রতিনিধি : পাবনার বেড়া উপজেলার ৪নং চাকলা ইউপি চেয়ারম্যান ফারুক হোসেনের দ্বিতীয় স্ত্রী নাছিমা আক্তার (৩০) হারপিক খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন।

বর্তমানে তিনি পাবনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। তার অবস্থা আশঙ্কামুক্ত বলে জানিয়েছেন কর্তব্যরত চিকিৎসকরা।

বেড়া হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, শনিবার (০২ জানুয়ারি) নাছিমা আক্তারকে বেড়া উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জরুরি বিভাগে ভর্তি করা হয়। তার অবস্থার অবনতি হলে উন্নত চিকিৎসার জন্য পাবনা পাঠানো হয়।

পারিবারিক কলহের জেরে হারপিক পান করে নাছিমা আক্তার আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে জানা গেছে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েজন এলাকাবাসি জানান, ফারুক চেয়ারম্যান দ্বিতীয় বিয়ে করার পর থেকেই তার সংসারে অশান্তি সৃষ্টি হয়েছে। দুই বউয়ের মধ্যে প্রতিনিয়ত ঝগড়া লেগেই থাকে।

এমন ঘটনাও দেখ গেছে যে, শত শত মানুষের উপস্থিতিতে নাছিমা ইউনিয়ন পরিষদে এসে ফারুককে মারধর করে ইউনিয়ন পরিষদ থেকে টেনে হিছড়ে বের করে নিয়ে গেছেন।

দুই স্ত্রীর যন্ত্রনায় চেয়ারম্যান মাসের বেশির ভাগ সময় ঢাকাতেই গা ঢাকা দিয়ে থাকেন বলে জানায় এলাকাবাসি। এতে চাকলা ইউনিয়নের জনসাধারন বিভিন্ন সেবা থেকে বঞ্চিত হতে হচ্ছে বলেও জানান তারা।

এ ব্যাপারে মুঠোফোনে ফারুক চেয়ারম্যানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন,আমি ঢাকা আছি আমার দ্বিতীয় স্ত্রী নাছিমার সাথে আমার কনো প্রকার ঝগড়া বিবাদ নাই।